আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বাড়ছে চুইঝালের কদর

Sharing is caring!

বাড়ছে চুইঝালের কদর

বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলা বাগেরহাট, খুলনা, নড়াইল, যশোর, সাতক্ষীরা এলাকায় জনপ্রিয় একটি ঝাল হলো চুইঝাল। বর্তমানে দেশের অন্যান্য জেলাতেও ঝাল হিসেবে এর জনপ্রিয়তা বাড়ছে। চুই ঝালের উপকারিতা সম্বন্ধে সম্যক ধারণা দিতেই আমার এই লেখা। চুই লতা জাতীয় গাছ। এর কাণ্ড ধূসর এবং পাতা পান পাতার মতো, দেখতে সবুজ রংয়ের। চুইঝাল খেতে ঝাল হলেও এর রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ঔষধি গুণ।

খুলনার চাষি, নবদীব জানান, তিন বছর আগে কৃষি সম্পসারণ আধিদপ্তর থেকে চুই চাষের উপর প্রশিক্ষণ গ্রহন করেন। এবং চারা তৈরি শুরু করেন। একই সাথে তার বেশ কিছু জমিত চাষও করছেন। “বাজারে চই ঝাল ১ হাজার ২০০ টাকা থেকে ১৬০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। বিঘা প্রতি ৩ লাখ করে বিক্রি করা সম্ভব”।

তিনি আরও বলেন, চুই উচু জমিতে ভালো হয়। আগে কেও এর খরব রাখত না। যেখানে সেখানে পড়ে থাকতো। এখন দেশের বিভিন্ন হোটলে চুই ঝালের মাংস বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। বাজারে এর কদর বেড়েছে।

খুলনার ডুমুরিয়ার কৃষি কর্মকর্ত মো. মোছাদ্দেক হোসেন জানান, আমরা এই অপ্রচলিত মসলাকে, সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে চাই। ঢাকার বাজারে এর বেশ চাহিদা রয়েছে। আবার এর ওষুধি গুনও অনেক। বিশেষ করে, পেট ব্যথা, খাবারে রুচি ফেরাতে, শ্বাসকষ্ঠ রোগে এর বহুল ব্যবহার রযেছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা ১০ জন নার্সারি মালিকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে চার তৈরি করে দেশে ছড়িয়ে দিচ্ছি। তার ভিতর নবদীব অন্যতম। তিনি, গত বছর ৫ হাজার চারা তৈরি করে সরবরাহ করেছেন। এবার তিনি ১০ হাজার চার তৈরি করবেন আশা রাখি।

কর্মকরতা বলেন, চুই ঝাল দেশের পরিধি ছাড়িয়ে বিদেশে পাঠিয়েছি। পাশের দেশে ভারতে পাঠানো হয়েছে। আমাদের এই জাতটি সম্পন্ন দেশি জাত। ঝালে বিস্তার করার জন্য আমার এর পাউডার করে বাজারে ছেড়েছি। একই সাথে আমার চাষি তৈরি করার জন্য প্রশিক্ষণ দিচ্ছি।

স্থানীয় চাষিরা বলেন, চুই ছায়াযুক্ত স্থানে ভালো হয়। তবে টবেও লাগানো যায়। তার বেশ কই বছর ধরে চুই চাষ করে ভালো লাভ করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
Oporadh Bichitra