আজ ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অনৈতিক কাজের জন্য ক্লোজড পুলিশ কর্মকর্তাকে ছুরিকাঘাত

Sharing is caring!

পুলিশনারীঘটিত কারণে বগুড়া পুলিশ লাইন্সে ক্লোজড এসআই রবিউল ইসলাম (৩০) দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন।

শুক্রবার রাতে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজের বিজ্ঞান ভবনের পেছনে তার ওপর হামলা করা হয়। তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্থানীয়দের ধারণা, তিনি আবারও কোনো অনৈতিক কাজ করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন। সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) ফয়সাল মাহমুদ জানান, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে; ওই অফিসার সুস্থ হলে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গাইবান্ধার বাসিন্দা এসআই রবিউল ইসলাম বগুড়ার সারিয়াকান্দির চন্দনবাইশা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে কর্মরত ছিলেন। গত ১৭ জানুয়ারি রাতে তিনি কাউকে না জানিয়ে ওই এলাকার একটি বাড়িতে দাওয়াতে যান। এক নারীর সঙ্গে তার অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ তুলে ওই নারীর সাবেক স্বামী ও তার লোকজন হামলা চালিয়ে মারপিটের পর তাকে (রবিউল) আটকে রাখে। কয়েক দিন পর তাকে পুলিশ লাইন্সে ক্লোজ করা হয়।

বর্তমানে তিনি বগুড়া শহরের কলোনি এলাকায় ভাড়া বাড়িতে থাকেন। শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে তিনি প্রায় চার কিলোমিটার দূরে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ ক্যাম্পাসে এলে ৪-৫ জন দুর্বৃত্ত তার ওপর হামলা করে। মুখে ও ঠোঁটে একাধিক ছুরিকাঘাত করে তাকে ফেলে যায়। পরে স্টেডিয়াম ফাঁড়ির পুলিশ ও অন্যরা তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহত এসআই রবিউল ইসলাম সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেছেন, সারিয়াকান্দিতে এক নারীর বাড়িতে দাওয়াতে যাওয়ার কারণে নয়; যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলনে বাধা দেওয়ায় প্রভাবশালীরা গত জানুয়ারিতে তার ওপর হামলা চালিয়েছিল। তার ধারণা, শুক্রবার রাতে তারাই এ হামলা চালিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে।

বগুড়া শহরের স্টেডিয়াম ফাঁড়ির এসআই জাহাঙ্গীর আলম জানান, শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে আজিজুল হক কলেজ ক্যাম্পাসে ছুরিকাহত হন এসআই রবিউল।

তিনি বাড়ি থেকে প্রায় চার কিলোমিটার দূরে রাতে কেন এসেছিলেন এ প্রসঙ্গে ওই কর্মকর্তা জানান, পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত থাকলেও সেখানে তার ব্যক্তিগত কাজ থাকতেই পারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের এক ইন্সপেক্টর জানান, এসআই রবিউল ইসলাম ভালো চরিত্রের কর্মকর্তা নন। সারিয়াকান্দিতে অপকর্ম করতে গিয়ে ধরা পড়ে মারপিটের শিকার হন। আবার তিনি বাড়ি থেকে অনেক দূরে কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে ছুরিকাহত হলেন। তার ধারণা, অনৈতিক কাজের জন্যই এসআই রবিউল হামলার শিকার হয়েছেন।

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) ফয়সাল মাহমুদ জানান, ব্যক্তিগত কাজে রাতে বাড়ি থেকে দূরে কলেজে আসা নিয়ে জল্পনা আছে। সারিয়াকান্দিতে তার ওপর হামলা ও নতুন করে এ হামলার কোনো যোগসূত্র আছে কিনা এবং তিনি রাতে কোন কারণে সেখানে এসেছিলেন- সেসব নিয়ে তদন্ত চলছে। তিনি সুস্থ হলে ও তদন্ত সম্পন্ন হলে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যাবে। এরপর জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
Oporadh Bichitra